BOU SSC 2nd Year Humanities 6th Assignment Answer 2021 উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এসএসসি এসাইনমেন্ট

BOU SSC 2nd Year Humanities 6th Assignment Answer 2021 উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এসএসসি এসাইনমেন্ট 2021, বাউবি দ্বিতীয় বর্ষের মানবিক শাখার ৬ষ্ঠ এসাইনমেন্ট।Bangladesh Open University Assignment।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ (Spirit and Ideology of Liberation War):

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে AllResultNotice এর ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

বাংলাদেশ এক সুদীর্ঘ রাজনৈতিক সংগাম ও সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা লাভ করেছে। ত্রিশ লাখ শহীদের রক্ত এবং চার লাখ নির্যাতিত নারীর ত্যাগের মহিমায় বাংলাদেশের জনগণ লাভ করে মহান স্বাধীনতা । বাঙালির হাজার বছরের ইতিহাসে তা এক অনন্য ঘটনা। যেসব মহান আদর্শ বাংলাদেশের জনগণকে দীর্ঘ রাজনৈতিক সংগ্রামে উদ্বুদ্ধ করেছিল এবং যে সব স্বপ্ন (সাম্য, গণতন্ত্র, বাঙালি জাতীয়তাবাদ, আর ধর্ম নিরপেক্ষতা) বাস্তবায়নে ১৯৭১ সালে বাঙালি কৃষক-শ্রমিক-জনতা অকাতরে প্রাণ দিয়েছে সেগুলোই আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ। বাংলাদেশ সংবিধানের প্রস্তাবনায় তা স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়“আমরা, বাংলাদেশের জনগণ, ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের মার্চ মাসের ২৬ তারিখে স্বাধীনতা ঘোষণা করিয়া জাতীয় মুক্তির জন্য ঐতিহাসিক যুদ্ধের মাধ্যমে স্থাধীন ও সার্বভৌম গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করিয়াছি। আমরা অঙ্গীকার করিতেছি যে, যে সকল মহান আদর্শ আমাদের বীর জনগণকে জাতীয় মুক্তির জন্য যুদ্ধে আত্মনিয়োগ ও বীর শহীদদিগকে প্রাণোৎসর্গ করিতে উদ্বুদ্ধ করিয়াছিল- জাতীয়তাবাদ, সমাজতন্ত্র, গণতন্ত্র এবং ধর্মনিরপেক্ষতার সেই সকল আদর্শ এই সংবিধানের মূলনীতি হইবে ।

আমরা আরও অঙ্গীকার করিতেছি যে, আমাদের রাষ্ট্রের অন্যতম মূল লক্ষ্য হইবে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এমন এক শোষণমুক্ত সমাজতান্ত্রিক সমাজের প্রতিষ্ঠা- যেখানে সকল নাগরিকের জন্য আইনের শাসন, মৌলিক মানবাধিকার এবং রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক সাম্য, স্বাধীনতা, সুবিচার নিশ্চিত হইবে ।”

বস্তুত বাঙালির চেতনায় ভাষা ভিত্তিক জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা সমুজ্জল থাকায় বাংলাদেশ রাষ্ট্রের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের সংবিধানে রাষ্ট্রপরিচালনার মূলনীতি হিসেবে এ চারটি আদর্শকে সংযুক্ত করেন। বাংলাদেশ সংবিধানকে এ কারণেই তিনি “শহীদের রক্তে লেখা সংবিধান” হিসাবে আখ্যায়িত করেন। এই চারটি নীতির বাইরেও মৌলিক অধিকারের নিশ্চয়তা স্বাধীনতার চেতনা ও আদর্শের অন্তর্ভূক্ত । নিশ্নে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ সম্পর্কে আলোচনা করা হল:

জাতীয়তাবাদ

জাতীয়তাবাদ একটি কল্পিত ভাবমূর্তি। এক অনন্য রাজনৈতিক চেতনা । সব থেকে ক্ষুদ্র যে জাতিগোষ্ঠী তারাও পরস্পরকে চেনে-জানে না। কিন্তু কিছু ভিন্ন উপাদান একটি জনগোষ্ঠীর মধ্যে কল্পিত সম্প্রদায়ের বোধ (imagined community) সৃষ্টি করে। জাতীয়তাবাদ সম্বন্ধে বাংলাদেশ সংবিধানে (অনুচ্ছেদ ৯) বলা হয়েছে_ “ভাষা ও সংস্কৃতিগত একক সত্তাবিশিষ্ট যে বাঙালি জাতি ঐক্যবদ্ধ ও সংকল্পবদ্ধ সংগ্রাম করে জাতীয় মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমতৃ অর্জন করেছে, সেই বাঙালি জাতির এক্য ও সংহতি হবে বাঙালি জাতীয়তাবাদের ভিত্তি।”

 

সমাজতন্ত্র ও শোষনমুক্তি:

মানুষের উপর মানুষের শোষন হইতে মুক্ত ন্যায়ানুগ ও সাম্যবাদী সমাজ লাভ নিশ্চিত করিবার উদ্দেশ্যে সমাজতন্ত্রিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা হইবে। সংবিধানে ১০ নং অনুচ্ছেদ ।

গণতন্ত্র ও মানবধিকার: (bou 2nd year humanities 6th assignment)

প্রজাতন্ত্র হইবে একটি গণতন্ত্র, যেখানে মৌলিক মানবাধিকার ও স্বাধীনতার নিশ্চয়তা থাকিবে। মানবত্তার মর্যাদা ও মূল্যের প্রতি শ্রাদ্ধাবোধ থাকবে এবং প্রশাসনের সকল পর্যায়ে নির্বাচিত প্রতিনিধির মাধ্যমে জনগনের কার্য কর অংশগ্রহন নিশ্চিত হইবে ১১ অনুচ্ছেদ।

ধর্ম ও নিরপেক্ষতা সাম্প্রদায়িকতাঃ ধর্ম নিরপক্ষতা নীতি বাস্তবায়নের জন্য।

(ক) সর্ব প্রকার সাম্প্রদায়িকতা।

(খ) রাষ্ট্র কর্তৃক কোন ধর্মকে রাজনৈতিক মর্যাদা দান

(গ) রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ধর্মীয় অপব্যবহার।

(ঘ) কোন বিশেষ ধর্ম পালন কারী ব্যক্তির প্রতি বৈষম্য বিলোপ করা হইবে।

অনুচ্ছেদ- 12

বাউবি দ্বিতীয় বর্ষের মানবিক শাখার ৬ষ্ঠ এসাইনমেন্ট)

Comments 1

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.